নুসরাত হত্যার রায়: আদালত ঘিরে কড়া নিরাপত্তা

0
38

ফেনী: ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় রায়কে কেন্দ্র করে জেলার আদালত চত্বর ও এর আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। রায় ঘিরে জেলা সদর ছাড়াও সোনাগাজীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যেকোনো ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে এমন নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বৃহস্পতিবার চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাণ্ডের রায় ঘোষণা করা হবে। জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদের আদালতে রায় ঘোষণা করার কথা রয়েছে।

ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার মো. নুরুন্নবী বলেন, ‘রায় ঘোষণার দিন আদালত চত্বরে সরকারি গাড়ি ছাড়া কোনো যানবাহন ঢুকতে পারবে না। আমরা সেখানে তিন স্তরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

রায় ঘোষণাকে ঘিরে ফেনী সদর ও সোনাগাজীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে পুলিশের নিরাপত্তা চৌকিও বসানো হয়েছে। এছাড়া র‌্যাব সদস্যদের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। রায় ঘোষণাকে ঘিরে যেকোনো ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মাঠে ফুট পেট্রোল, মোবাইল পেট্রোল, স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে। সোনাগাজীতে নুসরাতের বাড়িতে আগের চেয়ে আরো বেশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

এছাড়াও রয়েছে কিছু বিধি-নিষেধ। সেগুলো হলো মোটরসাইকেলে তিন জনের বেশি চড়তে পারবে না। অযাচিতভাবে কেউ ঘোরাফেরা করতে পারবে না। আদালত চত্বরের ভেতর-বাইরে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা থাকবেন। যাতে করে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে না পারে।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় আলিম পরীক্ষা কেন্দ্রে নুসরাত জাহানকে ছাদে ডেকে নিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। ৮ এপ্রিল তার ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাতের মৃত্যু হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে